কঙ্গনার বার্তা মুছে দিল টুইটার

ভারতের কৃষক আন্দোলনের প্রেক্ষিতে বলিউড তারকা কঙ্গনা রানাউতের বক্তব্য টুইটার প্লাটফর্মের বিধি লঙ্ঘন করেছে। আর তাই দু’দুটি পোস্ট মুছে ফেলল টুইটার। এক বিবৃতি দিয়ে টুইটার জানিয়েছে সেকথা।

ভারতের কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে বিশ্বখ্যাত সংগীত তারকা রিহানা টুইটে প্রশ্ন তোলেন কৃষক আন্দোলন নিয়ে কেউ কোনও মন্তব্য কেন করছেন না? তারপর থেকেই টুইটার ট্রেন্ডিং #IndiaAgainstPropaganda ।

আর ভারতের তরফে টুইটার ট্রেন্ডিং-এর প্রথম সুরটি বেঁধে দেন সচিন টেন্ডুলকার। বুধবার রিহানা, থানবার্গের টুইটের বিরোধিতা করে কড়া সুরেই টুইট করেন সচিন।

সচিনের সুরেই টুইট করেন ভারতীয় ক্রিকেট তারকা রোহিত শর্মা। সেখানে রোহিত লেখেন , ভারত সবসময়ই শক্তিশালী, যখন আমরা সবাই এক হয়ে দাঁড়াই। এবং সমাধানের পথও খুঁজে নিই প্রয়োজন মতো। আমাদের কৃষকরা আমাদের দেশের উন্নতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন এবং আমি নিশ্চিত সবাই মিলে সমাধানের জন্য তাদের ভূমিকা পালন করবে।

রোহিতের ওই টুইটের পর কঙ্গনা কৃষকদের উন্নতির জন্য যে আইন নিয়ে আসা হয়েছে, তার বিরুদ্ধে কৃষকরা কেন বিদ্রোহ করবেন? তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেছেন, যারা এই গন্ডগোল পাকাচ্ছেন, তারা কৃষক নন, জঙ্গি। সন্ত্রাসবাদীদের তাদের নামে না ডেকে, কেন কৃষক বলে সম্মোধন করা হচ্ছে বলেও রোহিতের বিরুদ্ধেও ক্ষোভে ফুঁসে ওঠেন কঙ্গনা । সত্যি কথা বলতে আপনাদের এত ভয় কেন বলেও প্রশ্ন তোলেন বলিউড অভিনেত্রী। কঙ্গনার এই টুইটটি ডিলিট করে দিয়েছে টুইটার।

কঙ্গনাকে আক্রমণ করে তাপসী পান্নু টুইটে বলেছেন, একটি মাত্র টুইট যদি একতা ভেঙে দেয়, বিশ্বাসে আঘাত করে, ধর্মীয় ভাবাবেগকে আক্রমণ করে, তাহলে দেশের মূল্যবোধ আরও শক্ত করতে হবে। অন্যদের মূল্যবোধ না শিখিয়ে, এবার একতা গড়ে তোলার চেষ্টা করুন প্রোপাগন্ডা ছড়ানোর ‘শিক্ষক’।

তাপসীর ওই টুইট প্রকাশ্য আসার পর তাকে পাল্টা কটূক্তি করেন কঙ্গনা। তাপসীকে বি গ্রেড অভিনেত্রী বলে যেমন কটাক্ষ করেন কঙ্গনা, তেমনি তার চিন্তাভাবনাও নিম্নমানের বলে উল্লেখ করেন বলিউডে বর্তমানে টুইটারে আলোচিত কঙ্গনা।