দেশে করোনায় প্রতি ঘণ্টায় ১ জনের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে আরও ২৪ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ১৮ জন ও নারী ছয়জন। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল পাঁচ হাজার ৭৪৭ জনে। একই সময় করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৬৯৬ জনের। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগী হলেন তিন লাখ ৯৪ হাজার ৮২৭ জন। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৬৮৭ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ১০ হাজার ৫৩২ জন।

প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনাভাইরাস-বিষয়ক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সারাদেশে করোনার সর্বশেষ সংক্রমণ পরিস্থিতি পর্যালোচনায় বুধবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার

সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ১১০টি পরীক্ষাগারে ১৪ হাজার ৬১১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। নমুনা পরীক্ষা করা হয় ১৪ হাজার ৯৫৮টি। একই সময় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৬৯৬ জন। ফলে দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল তিন লাখ ৯৪ হাজার ৮২৭ জনে। এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২২ লাখ ২১ হাজার ৩৬৯টি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৬৮৭ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল তিন লাখ ১০ হাজার ৫৩২ জনে। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ১১ দশমিক ৩৪ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ১৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ। রোগী শনাক্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৭৮ দশমিক ৬৫ এবং মৃতু্যর হার ১ দশমিক ৪৬ শতাংশ।

বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত ২৪ জনের মধ্যে বিশোর্ধ্ব একজন, চলিস্নশোর্ধ্ব দুইজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব আটজন এবং ষাটোর্ধ্ব ১৩ জন। বিভাগ অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত ২৪ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১৪ জন, চট্টগ্রামে ছয়, খুলনায় তিন এবং সিলেট বিভাগে একজন রয়েছেন।

এ পর্যন্ত করোনায় মোট মৃতের মধ্যে পুরুষ চার হাজার ৪২২ জন (৭৬ দশমিক ৯৪ শতাংশ) ও নারী এক হাজার ৩২৫ জন (২৩ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ)। তাদের মধ্যে দুই হাজার ৯৭৬ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি। এ ছাড়া এক হাজার ৫৩৪ জনের বয়স ৫১-৬০ বছরের মধ্যে, ৭১৫ জনের বয়স ৪১-৫০ বছরের মধ্যে, ৩১৯ জনের বয়স ৩১-৪০ বছরের মধ্যে, ১২৯ জনের বয়স ২১-৩০ বছরের মধ্যে, ৪৫ জনের বয়স ১১-২০ বছরের মধ্যে এবং ২৯ জনের বয়স ছিল ১০ বছরের কম।

এর মধ্যে দুই হাজার ৯৫১ জন ঢাকা বিভাগের, এক হাজার ১৫০ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, ৩৬৭ জন রাজশাহী বিভাগের, ৪৬২ জন খুলনা বিভাগের, ১৯৭ জন বরিশাল বিভাগের, ২৪১ জন সিলেট বিভাগের, ২৬০ জন রংপুর বিভাগের এবং ১১৯ জন ময়মনসিংহ বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিনে যুক্ত হয়েছেন ৭০৭ জন, ছাড়া পেয়েছেন ৭১৬ জন। এখন পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে যুক্ত হয়েছেন পাঁচ লাখ ৪৮ হাজার ৫২০ জন, ছাড়া পেয়েছেন পাঁচ লাখ ৮০ হাজার ৬৪৯ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ৩৯ হাজার ৮৭১ জন।

২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন ১৭১ জন, ছাড়া পেয়েছেন ১৮৫ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে যুক্ত হন ৮৪ হাজার ৮১০ জন। ছাড়া পান ৭২ হাজার ৬৬০ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে রয়েছেন ১২ হাজার ১৫০ জন।