বরিশাল বিভাগে করোনা শনাক্ত ২৬৯ জনের, সুস্থ-১১৪

বরিশাল বিভাগের ৬ জেলায় মোট ২৬৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।  এছাড়া সুস্থ হয়েছেন ১১৪ জন।

 

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় সূত্রে জানাগেছে, গত ২৪ ঘন্টায় বিভাগের মধ্যে ভেলা ও পটুয়াখালীব্যতিত ৪ জেলায় ২২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। যারমধ্যে বরিশাল নগরেই রয়েছে ১৫ জন, আর এই ১৫ জনের মধ্যে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের সদস্য রয়েছে ১২ জন ।

 

আক্রান্ত ‍পুলিশ সদস্যদের মধ্যে একজন এসআই, বাকীরা সবাই কনেস্টাবল বলে জানিয়েছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান।

 

উল্লেখ্য এ নিয়ে গত মঙ্গলবার থেকে এ পর্যন্ত ব‌রিশাল মেট্রোপ‌লিটন পু‌লিশ ও তাদের পরিবারের মিলিয়ে মোট ২৭ জন সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

 

এদিকে করোনার সংক্রমন প্রতিরোধে বিদেশী নাগরিকসহ ভিন্ন জেলা (সংক্রমিত) থেকে আগত ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টিনে রাখার কার্যক্রম চলমান রয়েছে। ফলে গত ১০ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত বরিশাল সিটি করপোরেশনসহ বিভাগের ৬ জেলায় মোট ১২ হাজার ৬৪৪ জনকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়।

 

যারমধ্য হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয় ১১ হাজার ৮৮৫ জনকে, আর এরমধ্যে ৯ হাজার ৬১৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।  এছাড়া বর্তমানে বিভাগের বিভিন্ন জেলায় হাসপাতালে (প্রতিষ্ঠানিক) কোয়ারেন্টিনে ৭৫৯ জন রয়েছেন এবং এ পর্যন্ত ৬৯০ জনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

 

অপরদিকে গত ২৪ ঘন্টায় বিভাগের ৬ জেলায় ২০২ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরণ করা হয়েছে এবং গত ২৪ ঘন্টায় বিভগের ৬ জেলায় ১২২ জনকে হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।  এছাড়া বিভাগের মধ্যে শুধুমাত্র ভোলা ও বরগুনা জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় ৯ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে, তবে কাউকে ছাড়পত্র দেয়া হয়নি।

 

এরবাহিরে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভাগের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে আইসোলেশনে চিকিৎসা প্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা ৩৯৮ জন এবং এরইমধ্যে ২২৮ জনকে ছাড়পত্রও দেয়া হয়েছে।

 

এদিকে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডাঃ বাসুদেব কুমার দাস জানিয়েছেন, বিভাগের মধ্যে এ পর্যন্ত বরিশাল জেলায় ১০৩ জন, পটুয়াখালীতে ৩৪, ভোলায় ১৭, পিরোজপুরে ৪১, বরগুনায় ৪৭ ও ঝালকাঠিতে ২৭ জন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে।  যারমধ্যে গোটা বিভাগে ১১৪ জন করোনা পজেটিভ রোগী সুস্থ্য হয়েছেন। যাদের এরইমধ্যে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

 

এছাড়া বরিশালের মুলাদীতে ১জন, ঝালকাঠির নলছিটিতে ১ জন, পটুয়াখালী জেলার সদর উপজেলায় ১ জন, মির্জাগঞ্জে ১ জন, দুমকিতে ১ জন, বরগুনা জেলার আমতলীতে ১ জন ও বেতাগীতে ১ জনের মৃত্যুর হয়েছে। এ নিয়ে বিভাগে ৭ জন ব্যক্তির করোনায় মৃত্যু হয়েছে বলে জানান তিনি।